আবহাওয়া বিশ্বঘড়ি মুদ্রাবাজার বাংলা দেখা না গেলে                    
শিরোনাম :
আমতলীতে মৎস্য কর্মকর্তা ও কোষ্ট গার্ডের নাকের ডগায় জাটকা নিধনের মহোৎসব      বাংলাদেশে বর্তমানে কোনো গণতন্ত্র নেই: মির্জা ফকরুল       সেই ‘হাওয়া ভবন’র মুখপাত্রের অভিযোগ: তারেক রহমান তথ্য সন্ত্রাসের শিকার      ৭ মার্চ কেন জাতীয় দিবস নয় : হাইকোর্ট      টাকার না দিতে পারলে লাশ জিন্মি করতে পারবে না হাসপাতাল ও ক্লিনিক       সৌদি আরবের আগ্রহেই সৌদি-ইসরায়েল গোপন সম্পর্ক : ইসরায়েলি মন্ত্রী       সংবাদ প্রকাশের জন্য টাকা দিচ্ছেন যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম জাহিদ (ভিডিও)      
সাংবাদিক আহমেদ রাজুর নামে ওয়ালটনের একের পর এক মিথ্যা মামলা
Published : Tuesday, 2 May, 2017 at 7:43 PM
সাংবাদিক আহমেদ রাজুর নামে ওয়ালটনের একের পর এক মিথ্যা মামলানিজস্ব প্রতিবেদক:সাংবাদিক আহমেদ রাজুর নামে ওয়ালটনের একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়েই যাচ্ছে ওয়ালটন গ্রুপ। ওয়ালটন গ্রুপের একের পর এক আক্রোশ ও প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন সাংবাদিক আহমেদ রাজু। অনলাইন নিউজ পোর্টাল নতুন সময় ডটকমের নির্বাহী সম্পাদক আহমেদ রাজুকে এবার অপর একটি চাঁদাবাজির মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।      
গত ৩০ এপ্রিল করা চাঁদাবাজির এ মামলায় সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে আজ মঙ্গলবার এক দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। চাঁদাবাজির এ মামলায় বাদী ফার্স্ট সিনিয়র সহকারী পরিচালক ক্রিয়েটিভ অ্যান্ড পাবলিকেশন ওয়ালটন গ্রুপের মো. রবিউল ইসলাম মিল্টন।
গত ৩০ এপ্রিল করা চাঁদাবাজির মামলা সম্পর্কে কোন খোজই জানতো না আহমেদ রাজুর আইনজীবিরা। তারা যখন আইসিটি এ্যাক্টে করা মামলার শুনানি নিয়ে ব্যস্ত, এই সময় চাঁদাবাজির মামলার শুনানীতে তাকে এক দিনের রিমান্ড দেওয়া হয় বলে জানান নতুন সময়ের সাংবাদিক ইমরান আলী।
এর আগে ওয়ালটনের নিম্নমানের মোবাইল সেট ও টেলিভিশন নিয়ে তথ্যনির্ভর প্রতিবেদন প্রকাশের পর হয়রানিমূলক আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ধারা মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে। ওই কোম্পানির নিম্নমানের পণ্য ক্রয় করে ক্ষতিগ্রস্ত ভোক্তাদের ভোগান্তি নিয়ে রিপোর্ট করায় একজন সাহসী সাংবাদিককে এভাবে হয়রানি করার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বইছে প্রতিবাদের ঝড়।
ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্যের মান নিয়ে মানুষের অভিযোগের শেষ নেই। ক্ষতিগ্রস্তরা প্রায়ই ওয়ালটনের মোবাইল সেট, টেলিভিশনসহ অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য নিয়ে ভোগান্তির বিষয়ে তাদের মতামত জানিয়ে আসছে। এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্তরা সবচেয়ে বেশি সোচ্চার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 
নতুন সময়ে ওয়ালটনের নিম্নমানের পণ্য নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশের পর পণ্য কিনে ভোগান্তিতে পড়া মানুষ কমেন্টের মাধ্যমে তাদের প্রতারিত হওয়ার বিষয়টি প্রকাশ করেন। আর ওয়ালটনের প্রতারণা নিয়ে রিপোর্ট করায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকরা স্বস্তি প্রকাশ করে ওই রিপোর্টগুলোতে কমেন্টও করেন।
গ্রেফতারের প্রতিবাদে নিন্দার ঝড় উঠেছে সারা দেশ জুড়ে।এদিকে আহমেদ রাজুকে গ্রেফতার করায় নিন্দা ও উদ্বেগ জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। সাংবাদিক, পরিবহন নেতা, রাজনৈতিক দল সবাই স্বোচ্ছার হয়ে উঠেছে সারা দেশ জুড়ে। ফেইসবুকে চলছে পুলিশের বিরুদ্ধে এমন মামলা নেওয়া জন্য সমালোচনার ঝড় উঠেছে ফেইসবুক ঝুড়ে। 
মঙ্গলবার সকালে ধানমন্ডিতে টিআইবি আয়োজিত এক কর্মশালায় সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে গ্রেফতার করায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।
রাজনৈতিক দল ট্রুথ পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম হাবিব ও মহাসচিব এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী আহমেদ রাজুকে আইসিটি এ্যাক্টে গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানিয়েছে।
পরিবহণ নেতা ঢাকা সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও তেতুলিয়া পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ ওয়াদুদ মাসুম সাংবাদিক আহমেদ রাজু'র বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন। তিনি এমন মিথ্যা মামলা করার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
সাংবাদিক নেতারা আহমেদ রাজুর গ্রেফতারের প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।তারা বলেন, আইসিটি আইনের এক ধারায় সাংবাদিকদের গ্রেফতার করে হয়রানি করা হচ্ছে। এ আইনে সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ধারা বাতিল ও সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। এই সময়ে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ও ডেইলি অবজারভারের সম্পাদক ইকবাল সোবাহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, মহাসচিব ওমর ফারুক, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক অমিয় ঘটক পুলক, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী।
 নর্থ বেঙ্গল জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি মোদাব্বের ও সাধারণ সম্পাদক খায়রুজ্জামান কামাল এক যৌথ বিবৃতিতে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আহমেদ রাজুকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানান।
ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের এক আলোচনা সভায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের অনৈক্যের কারণে সাংবাদিকরা বেশি নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। খুব খারাপ ও ঝুঁকির মধ্যে আছি আমরা। বর্তমানে সামাজিক মর্যাদার ক্ষেত্রেও পিছিয়ে সাংবাদিকরা। যেকোনো আন্দোলন সংগ্রামে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
সাপ্তাহিক নতুন বার্তা'র প্রধান সম্পাদক ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় বাংলাদেশের শীর্ষ সাংবাদিক সাইদুর রহমান রিমন ও নতুন বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক ইউসুফ আহমেদ তুহিন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আহমেদ রাজুর গ্রেফতার পূর্বক রিমান্ডে নেওয়ার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন। তারা উল্লেখ করেন, বাংলাদেশের শীর্ষ সাংবাদিক আহমেদ রাজু'র নামে মিথ্যা মামলা দেওয়ার মাধ্যমে পুরো সাংবাদিক সমাজকে একটি ব্যবসায়ীক গোষ্টি হুমকীর সন্মুখিন করেছেন। তারা অবিলম্বে আহমেদ রাজুর বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান।
দৈনিক সোনালী খবর এর সম্পাদক ও প্রকাশক মনিরুজ্জামান মিয়াও আহমেদ রাজুর বিরুদ্ধে হওয়া মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবী জানান।
বিডিহটনিউজের সম্পাদক ইয়াসিন আহমেদ রিপন আহমেদ রাজুর বিরুদ্ধে হওয়া মামলা প্রত্যাহার পূর্বক ৫৭ ধারা বাতিলের দাবী জানান।
আহমেদ রাজুকে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করায় নিন্দা ও উদ্বেগ জানিয়েছে বাংলাদেশ অনলাইন জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশন-বিওজেএ।
মঙ্গলবার গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সাংবাদিক সংগঠনটির সভাপতি জাহিদ ইকবাল ও সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সরকার উদ্বেগ জানিয়ে বলেন,ওয়ালটনের নিম্নমানের পণ্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হন সাংবাদিক আহমেদ রাজু। তবে সত্য ও তথ্যনির্ভর সংবাদ প্রকাশ করা থেকে বিরত হননি তিনি। এতে ওয়ালটনের রোষানলে পড়েন তিনি। শেষপর্যন্ত কোনোভাবে আহমেদ রাজুকে বাগে আনতে না পেরে তার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করেছে  প্রতিষ্ঠানটি।
বিওজেএর নেতারা বলেন, সাংবাদিক রাজুকে আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছে যা  সংবিধানের মূল চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক৷ এই ধারাটি সংবাদপত্র ও নাগরিকের স্বাধীনতাকে খর্ব করছে, যা সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদের পরিপন্থি৷ ৩৯ অনুচ্ছেদে দেশের সব নাগরিকের চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার পাশাপাশি কতিপয় শর্ত সাপেক্ষে নাগরিকের বাকস্বাধীনতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা হয়েছে৷
নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘‘৫৭ ধারা যদি প্রচলিত থাকে, তাহলে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা অপব্যবহার করে অপছন্দের যে কাউকে দমন-পীড়ন চালানো যাবে৷ এমনিতেই মানুষ আতঙ্কে রয়েছে৷ আর এই আতঙ্ক থাকলে আর যাই হোক চিন্তার স্বাধীনতা থাকে না৷
বিওজেএর বলেন, ‘‘এই আইনটি বাকস্বাধীনতা হরণের পাশাপাশি প্রতিপক্ষকে হয়রানির একটি মোক্ষম অস্ত্র৷ কারণ এই আইনে এমন সব অপরাধের কথা বলা হয়েছে, যেসব অপরাধের ব্যখ্যা নেই৷ তাই ইচ্ছে মতো এই আইনের অপব্যবহার সম্ভব৷'' তাই অবিলম্বে আইসিটি আইনের ৫৭ ধারা বাতিলের দাবি সহ অবিলম্বে সাংবাদিক আহমেদ রাজুর মুক্তি দাবী করেন বিওজেএর নেতৃদ্বয়।







জাতীয় পাতার আরও খবর
আজকের রাশিচক্র
সম্পাদক : ইয়াসিন আহমেদ রিপন

ঝর্ণা মঞ্জিল, মাষ্টার পাড়া, মাইজদী, নোয়াখালী। ঢাকা: ৭৯/বি, এভিনিউ-১, ব্লক-বি, মিরপুর-১২, ঢাকা-১২২৬, বাংলাদেশ।
ফোন : +৮৮-০২-৯০১৫৫৬৬, মোবাইল : ০১৯১৫-৭৮৪২৬৪, ই-মেইল : info@bdhotnews.com